ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিনহাটায় থাকা পৈত্রিক জমি দিনহাটা পৌরসভাকে দিতে সন্মতি জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। একই সঙ্গে ওই জমিতে তার নামে চ্যারিটেবল কিছু করা যায় কিনা পুরসভার কাছে সেই ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি।
বুধবার দিনহাটা পৌরসভার পৌরপ্রধান বিধায়ক উদয়ন গুহ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন । 
তিনি বলেন, দিনহাটার ছেলে ও বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের কাছে তার পৈত্রিক জমি দিনহাটা পৌরসভাকে দেওয়ার জন্য আবেদন জানানো হয়েছিল। সেই আবেদনে পরিপ্রেক্ষীতে তিনি সন্মতি জানিয়ে চিঠি দেন। এরশাদ নিজের পৈত্রিক জমির অংশ দিনহাটা পৌরসভাকে দেওয়ার কথা লিখিত ভাবে জানালেও বাকি অংশ নিয়েও তার শরিকদের সাথে কথা বলবে পৌরসভা। 
উদয়ন গুহ বলেন, এরশাদের নামে দিনহাটা শহরে যাতে একটা চ্যারিটেবল কিছু করা যায়, সেই চিন্তা-ভাবনা চলছে। 
তিনি জানান, এরশাদ দিনহাটা শহরে জন্মেছেন। দিনহাটা হাইস্কুলে পড়াশুনা করেছেন। জীবনের অনেকটা সময় কাটিয়েছেন দিনহাটায় । ভারত থেকে তার পরিবার চলে যাওয়ার কয়েক দশক পর ২০০৯ ও ২০১৬ সালে তিনি পারিবারিক সফরে দিনহাটায় আসেন। রাজ্যের সাবেক মন্ত্রী প্রয়াত কমল গুহ , প্রয়াত চিকিৎসক অসিত চক্রবর্তী, সদ্য প্রয়াত সঙ্গীত শিল্পী সুনীল দাস প্রমুখরা ছিলেন এরশাদের বাল্যবন্ধু। এরশাদের পৈত্রিক জমি শহরের গোধুলি বাজার এলাকার ৬ নং ওয়ার্ডে অবস্থিত। জমিটি বছরের পর বছর ধরেই এলাকার মানুষের কাছে খেলার মাঠ হিসেবেই পরিচিত। 
উদয়ন গুহ বলেন, সম্প্রতি জমিটি এরশাদের আত্মীয়-পরিজনরা নিজেদের দাবি করে দখলের চেষ্টা করলে প্রতিবাদে গর্জে উঠেন স্থানীয়রা। শুরু হয় ঠাণ্ডা লড়াই। সমস্যা সমাধানে মাঠে নামি আমি। অবশেষে পৌরসভার আবেদনে এরশাদ সন্মতি জানানোয় খুশি সবাই।
তিনি জানান, পৌরসভার পক্ষ থেকে এই জমিতে ইনডোর স্টেডিয়াম তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে। তার আগে আইনগত দিক ও আর কার কার মালিকানা  আছে সেটাও খতিয়ে দেখা হবে।
সূত্র: সমকাল