বর্তমান সময়ে রাজনৈতিক ক্ষেত্রে সরব গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি সরকারের নানা দিক তুলে ধরে সরকারের সমা’লোচনা করেন। সাম্প্রতিক সময়ে তিনি সরকারের উদ্দেশে বলেছেন, সিন্দুকে যদি বিলিয়ন বিলিয়ন পরিমান অর্থ রেখে দেওয়া হয়, সেটাতে কোনো লাভ হবে না। যত এই ধরনের অর্থ রয়েছে সেটা করোনাকালীন সময়ে যারা কঠিন সময় পার করছেন সেই সকল দরিদ্র মানুষের কল্যানে ব্যবহার করতে হবে। অনেক দরিদ্র মানুষের আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে, তারা মানবেতর জীবনযাপন করছেন।
আজ শনিবার দুপুরে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র কর্তৃক করোনা মহামা’রীতে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে হকার, শ্রমিক ও বেকার সাংবাদিকদের খাদ্য সহায়তা কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, করোনায় মানুষের দুর্দ’শা লা’ঘবে প্রথম ধাপ হলো কর্মহীন মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসা। আড়াই কোটি দুস্থ পরিবারের জন্য এক মাসের খাদ্যের যোগান নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, সিন্দুকের মধ্যে বিলিয়ন বিলিয়ন টাকা রেখে লাভ হবে না। দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা করে সঞ্চিত টাকা দরিদ্রের কাজে ব্যবহার করতে হবে। প্রশাসনকে ব্যবহার করে তিনি কর্মহীন, অসহায় মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য সহায়তা পাঠিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানান। পাশাপাশি দেরিতে হলেও ভ্যাক্সিন তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য তিনি সরকারকে ধন্যবাদ জানান।

এ সময় বক্তব্য রাখেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডা. মনজুর কাদির আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা ইশতিয়াক আজিজ উলফাত ও সাংবাদিক নেতা শফিউল আলম দোলন। ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি পরিচালনায় ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু।

জাফরুল্লাহ আরো বলেন, যারা আজ মানবে’তর জীবন যাপন করছেন তাদের মধ্যে রয়েছে দিন মজুর অর্থাৎ যাদের দৈনিক আয়ের মাধ্যমেই সংসার চলে। শহর এবং গ্রামে এই ধরনের অনেক মানুষ রয়েছে যারা করোনাকালীন সময়ে লকডাউনে পড়ে ক’ঠিন পরিস্থি’তির মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছে। তাদের সহায়তা করুন।

News Page Below Ad