সাবেক সেনাবাহিনীর মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ এর ঘটনাটি নিয়ে ইতিমধ্যে ব্যাপক তোলপাড় হয়ে গেছে এবংসিনহা ঘটনার প্রতিবেদন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়ার প্রেক্ষিতে এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে তদন্ত কমিটির মাধ্যমে জানানো হয়েছে সিনহা ঘটনার নেপথ্যে অসৎ কোন উদ্দেশ্য ছিল এবং এই ঘটনার সাথে কক্সবাজারের এসপি এ বি এম মাসুদ হোসেনের সম্পৃক্ততার কথা উঠে আসে এবং সেইসাথে পুলিশ সুপারের তদারকি এবং জবাবদিহিতার ঘাটতি এই ঘটনা ছিল বলে তদন্ত কমিটির রিপোর্টে উঠে এসেছে


অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান নেপথ্যে ’অসৎ উদ্দেশ্য’ ছিল বলে মন্তব্য করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত উচ্চ পর্যায়ের যৌথ তদন্ত কমিটি। গত ৩১ জুলাই কক্সবাজারের মেরিন ড্রাইভের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের সিনহার হওয়ার ঘটনাটি তাৎক্ষণিক নাকি পূর্বপরিকল্পিত এ নিয়ে প্রশ্ন ওঠে।
সূত্র বলছে, এ প্রশ্নের সরাসরি কোনো উত্তর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির রিপোর্টে দেয়া হয়নি। তবে সিনহা ও তার সহকর্মীরা তথ্যচিত্রের জন্য যে ভিডিও ধারণ করেছিলেন তার যোগসূত্র থাকতে পারে বলে মনে করে তদন্ত কমিটি।
তদন্ত রিপোর্টের পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছে, সিনহা হওয়ার পর কক্সবাজার জেলার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেনের  নির্দেশে ঘটনা ভিন্ন খাতে নেয়ার চেষ্টা করা হয়। এছাড়া এ ঘটনার পর এসপি সংবেদনশীল আচরণ করতে পারেননি। পুলিশ সুপারের জবাবদিহিতা ও তদারকির ঘটতি ছিল বলেও তদন্ত কমিটির রিপোর্টে উঠে এসেছে।
তদন্ত কমিটির ১৩ সুপারিশ
সরেজমিন তদন্ত করে ঘটনার কারণ, উৎস অনুসন্ধান এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা প্রতিরোধে করণীয় ঠিক করতে নির্দেশনা দিয়ে গত ১ আগস্ট তদন্ত কমিটি পুনর্গঠন করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তদন্ত কমিটি টানা ৩৫ দিনের তদন্ত শেষে সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে ৮০ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদন, ৫৮৬ পৃষ্ঠার ৬৮ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য এবং ২১ পৃষ্ঠার ঘটনা সংশ্লিষ্ট ছবি তুলে দেয়।
এফবিআই’র আদলে আলাদা তদন্ত সংস্থা করার সুপারিশ:
তদন্ত কমিটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে পুলিশের প্রভাবমুক্ত নিরপেক্ষ ও স্বতন্ত্র একটি তদন্ত সংস্থা গঠন করার পরামর্শ দিয়েছে। তদন্ত কমিটির মতে সম্প্রতি বেশ কিছু ঘটনায় পুলিশের তদন্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এজন্য পুলিশি তদন্ত নিয়ে জনমনে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। তাই কোনো কোনো ’ ঘটনায় নিরপেক্ষ কোনো সংস্থার মাধ্যমে তদন্ত করার প্রয়োজন দেখা দিলে এফবিআই’র আদলে গঠিত তদন্ত সংস্থা তদন্ত করতে পারবে। বর্তমানে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি, পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন পিবিআই, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন, ডিটেকটিভ ব্রাঞ্চ বা ডিবিসহ যত তদন্ত সংস্থা রয়েছে সব পুলিশ বাহিনী নিয়ন্ত্রিত তদন্ত সংস্থা।

সাবেক সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ এর সাথে ঘটে যাওয়া দুঃখজনক ঘটনা নিয়ে এরই মধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির হাতে পৌঁছেছে। টানা এক মাসেরও বেশি সময় ধরে তদন্ত শেষে গত দুদিন আগে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর হাতে এই প্রতিবেদন তুলে দেওয়া হয়।তদন্ত কমিটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে থেকে এবং পুলিশের প্রভাবমুক্ত নিরপেক্ষ একটি তদন্ত সংস্থা গঠন করে পরামর্শ দিয়েছে

News Page Below Ad