ডক্টর জাফরুল্লাহ চৌধুরী বাংলাদেশ অন্যতম একজন গুণী ব্যক্তিত্ব তিনি মুক্তিযোদ্ধা এবং গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা। দেশের জন্য তার অবদান অনেক এবং এখনও তিনি মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। সম্প্রতি দেশে ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস আর দেশের এই কঠিন সময়ে মানুষের কল্যাণে কাজ করতেও তিনি পিছপা হচ্ছেন না এবং তার প্রতিষ্ঠিত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র একটি আবিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেয় যা দিয়ে স্বল্পমূল্যে অল্প সময়ে করোনা ভাইরাস শনাক্ত করা সম্ভব এবং তারা ঘোষণা দেয় যে এটি অবশ্যই একটি কার্যকরী কি হবে যা দিয়ে দ্রুত সময়ে ফল পাবে মানুষ

ভারতীয় লেখক ডা. কালিদাস বৈদ্যের ’বাঙালির মুক্তিযুদ্ধে অন্তরালের শেখ মুজিব’ নামে বইটি মুজিববর্ষে কালিমা লেপন করেছে বলে মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।
রবিবার (২৮ জুন) দুপুরে সংবাদ বিবৃতিতে তিনি মন্তব্য করেন।
ডা. জাফরুল্লাহ বলেন,  ’দেশে মুজিববর্ষ পালিত হচ্ছে। আমি খুবই আনন্দিত ও আহ্লাদিত। তবে দুঃখের সঙ্গে বলতে হচ্ছে যে, আমার পরিচিত ভারতীয় লেখক ডা. কালিদাস বৈদ্য ’বাঙালির মুক্তিযুদ্ধে অন্তরালের শেখ মুজিব’ নামে একটি বই লিখেছেন। বইটি বঙ্গবন্ধুর সব কীর্তিকে ম্লান করে দিয়েছে। মুজিববর্ষের ওপর কালিমা লেপন করে যাচ্ছে। ডা. কালিদাসের লেখা বইটি বাজার, ফেসবুকে এবং ইন্টারনেটে পাওয়া যাচ্ছে।  বইটি ইংরেজিতে ’Bangladesh liberation war: sheikh mujib behind the scene’ নামে খোলা বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। এই বইটি জনসম্মুখে আসার বিরোধিতা করি।’
তিনি আরও বলেন, ’আশা করি সরকার বইটির বিষয়ে একটি গ্রহণযোগ্য সুন্দর, সহনশীল ব্যাখ্যা দেবেন। দেশের বুদ্ধিজীবিরা ও সুশীল সমাজ বইটির ওপর তাদের মতামত দেবেন।’
সব সংসদ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, বইটি জাতীয় সংসদে উত্থাপন করুন, আলোচনা করুন এবং নিন্দা প্রস্তাব গ্রহণ করুন।
 
 
 সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে অবশেষে করো না মুক্ত হয়েছেন ডক্টর জাফরুল্লাহ চৌধুরীগত মাসের শেষের দিকে তিনি প্রাণঘাতী এই কারণে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়েন এবং গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের হাসপাতালে তিনি চিকিৎসা নিয়েছেন সেখানে তার চিকিৎসা চলে এবংচিকিৎসকরা সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধান করেন তাঁকে অক্সিজেন সাপোর্ট সহ প্লাজমা থেরাপি থেরাপিসহ কয়েকদফা থেরাপি চলতে থাকে তারপরও তার অবস্থা স্থিতিশীল থাকবে এরপর দেশি-বিদেশি চিকিৎসকের সমন্বয় মেডিকেল বোর্ড গঠন করে তার চিকিৎসা প্রদান করা হয় এবং আস্তে আস্তে তিনি ভালোর দিকে যেতে থাকেন এবং অবশেষে করানো মুক্ত হন

News Page Below Ad