করোনা এখন গোটা পৃথিবীতে আতঙ্কিত একটি ভাইরাসের নাম। এমন ভয়াবহ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের কতিপয় পয়সাওয়ালা মানুষ বাজারের সব পণ্য কিনে মজুদ করছে নিজেদের বেঁচে থাকার কথা চিন্তা করে। দেশের গরিব মানুষদের কি হবে এমন চিন্তা নেই কারোর মাথায়। প্রাণঘাতী করোনা কে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা মহামারী ভাইরাস বলে ঘোষনা দিয়েছে। এ মহামারী ভাইরাস সর্বপ্রথম চীনে আবির্ভাব হয়। হাঁচি, কাশি, জ্বর, শরীরে ব্যাথা এমন লক্ষনের এ ভাইরাস চীন ছাড়িয়ে গোটা বিশ্বের ১৫৭টি দেশ খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে। সারা বিশ্ব এখন এ ভাইরাসের কারনে আতঙ্কিত। করোনায় শিশু, যুবক, বৃদ্ধ, ধনী, গরিব সবাই আক্রান্ত হচ্ছে এই রোগে। বর্তমান বাজারের লুটাসু চিত্র তুলে ধরলেন ড: আসিফ নজরুল।


আমার বউ বাজারে গিয়েছিল। মীনাবাজার আর স্বপ্ন আতংকিত মানুষ খালি করে ফেলেছে প্রায় সবকিছু। কোন কোন লোভী একা কিনছে দুমাসের চাল, ডাল, তেল।
আচ্ছা যারা পাবেনা তাদের কি হবে?
যাদের কেনার সামর্থ্য নেই তাদের কি হবে?
রাস্তাঘাট খালি হলে, কাজকর্ম বন্ধ হলে, দিনমজুর, রিকাশাচালক, ফেরীওয়ালা, ভিখারী কি খাবে, কোথায় পাবে টাকা?
কি ভয়াবহ বিপর্যয়ের দিকে যাচ্ছি আমরা!
আমি তো সরকারে থাকলে ঘুম হারাম হয়ে যেত আমার।
এদের দেখো তো মনে হয়না বিকার আছে কোন?
কি হবে আমাদের সাধারণ মানুষের!


প্রসঙ্গত, খুব শীঘ্রই বাংলাদেশের বাজার খাতে অরাজকতা দেখা দেবে বলে মনে করেন ড: আসিফ। যেভাবে বাজারে, অসাধু ব্যবসায়ীরা মজুদ করছে আর আমরা বড়ো লোক ভক্তারা তা বেশি দামে বেশি বেশি করে কিনে মজুদ করছি। চিন্তা করি না সাধারন মানুষের কি হবে?

News Page Below Ad