অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় প্রবাসীরা দেশে ফিরে অনেক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার মুখোমুখি হন এবং তাদের মূল্যবান জিনিসপত্র হারিয়ে ফেলেন সেই সাথে কষ্টে অর্জিত তাদের পরিশ্রমের যে অর্থ এবং মূল্যবান জিনিসপত্র সেগুলো অনেক সময় অনেক প্রতারক চক্র আছেন যারা নিয়ে যান বিমানবন্দরে বিভিন্ন সময়ে প্রতারণার ঘটনা ঘটে মুখোশধারী কিছু মানুষ প্রবাসীদের বোকা বানিয়ে তাদের কাছ থেকে মূল্যবান অর্থ-সম্পদ জিনিসপত্র হাতিয়ে নিয়ে যায়

হয়রত শাহাজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দন থেকে প্রাইভেটকার যোগে বাড়ি ফেরার পথে সৌদি প্রবাসী মো. হারিছ মিয়া (২৫) ও তার দুই মামাতো ভাইকে আটকে রেখে সৌদি রিয়াল, স্বর্ণাঙ্কার ও মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে নরসিংদীর রায়পুরা পৌর এলাকার তুলাতুলীর একটি গাড়ির গ্যারেজ থেকে তাদেরকে উদ্ধার করেন।
এ ঘটনায় জড়িত মো. দেলোয়ার (৪০) ও প্রাইভেটকারে চালক ইদ্রিস মিয়া (২৫) বিরুদ্ধে ভুক্তভুগীর মামা মো. দুলাল ভূঁইয়া বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। তাঁরা দুজই রায়পুরা পৌর এলাকার তুলাতুলীর বাসিন্দা। গত মঙ্গলবারে (১২ জানুয়ারির) ওই ঘটনায় পুলিশ এখনো কাউকে আটক করতে পারেননি।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রায়পুরা সাংবাদিক ফোরামের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানিয়েছে ভুক্তভুগী প্রবাসী হারিছ মিয়া।
তিনি আরো বলেন, ঢাকা মেট্রো গ-২২-১৫৬৮ নম্বর প্রাইভেটকারটি রায়পুরা পৌর এলাকার তুলাতুলী পৌঁছার পর চালক গাড়িটি দ্রুত দেলোয়ারের গ্যারেজে প্রবেশ করায়। এরপর দেলোয়ার ও প্রাইভেটকারে চালক ইদ্রিসসহ দুই অজ্ঞাত ব্যক্তি তাদের সঙ্গে থাকা ৪ হাজার সৌদি রিয়াল, চারভরি স্বর্ণাঙ্কার ও একটি স্মার্ট মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ভুক্তভুগীর মামা ডাঃ হারুন অর রশিদ, দুলাল ভূঁইয়া, মামাতো ভাই মো. মোখলেছ ভূঁইয়া, মো. খোরশেদ আলম।

বিভিন্ন সময় দেখা যায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে যেসকল প্রবাসীরা আসেন দেশে তারা বিভিন্ন বিপদের সম্মুখীন হন এর কারণ হচ্ছে কিছু প্রতারকচক্র আছে যারা প্রবাসীদের কে টার্গেট করে এবং তাদেরকে বোকা বানিয়ে এবং তাদেরকে বিভিন্ন কায়দায় বিপদে ফেলে তাদের থেকে মূল্যবান জিনিসপত্র এবং নগদ অর্থ কেড়ে নেয় এবং এ ধরনের ঘটনা দেশে প্রায় সময় ঘটছে অনেকেই এই বিপদের মুখোমুখি হচ্ছেন

News Page Below Ad