রাজধানীতে ঘটেছে স্কুলপড়ুয়া দুই শিক্ষার্থীর একটি দুঃখজনক ঘটনা এবং সারাদেশে এখন এই ঘটনা নিয়ে ব্যাপক ভাবে আলোচনা চলছে সর্বত্র মূলত এধরনের ঘটনা প্রায় সময় দেশে ঘটে তবে কিছু ক্ষেত্রে সেগুলো প্রকাশ্যে আসে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কিংবা সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ পায় অধিকাংশ ঘটনায় এমন থাকে যে সেগুলো প্রকাশ্যে আসে না যার ফলে মানুষ এগুলো সম্পর্কে জানতে পারেনা। রাজধানীর কলাবাগানে এবার এমন একটি ঘটনা ঘটেছে


অতিরিক্ত ’/’র’/’ক্ত’/’ক্ষ’/’র’/’ণে’/’ই বন্ধুর বাসায় না ফেরার দেশে ঢাকার কলাবাগান এলাকায় ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল মাস্টারমাইন্ডের ’ও’ লেভেল পর্যায়ের শিক্ষার্থী আনুশকাহ নূর আমিনের। বাসায় কেউ না থাকায় বান্ধবীকে কাছে পাওয়ার পরিকল্পনা করে তানভীর ইফতেফার দিহান। সেই পরিকল্পনাতেই আনুশকা নুর আমিন নামে ’ও’ লেভেলের ছাত্রীকে গ্রুপ স্টাডির নামে বাসায় ডেকে নেওয়া হয়। সেখানে আনুশকার সঙ্গে মিলিত হওয়ার একপর্যায়ে প্রচুর ’/’র’/’ক্ত’/’ক্ষ’/’র’/’ণ হয়। এসময় আনুশকা বার বার বলছিল ’কি করেছো দিহান, আমি আর বাঁচবো না’
একথা বলতে বলতে অ’/জ্ঞা’/ন হয়ে যায় আনুশকা। পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশের কাছে এমনটাই জানিয়েছে দিহান। তবে চিকিৎসকদের দাবি হাসপাতালে নেয়ার আগেই আনুশকার মৃত্যু হয়েছে। মামলায় গ্রেফতার তানভীর ইফতেখার দিহান আদালতে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন। শুক্রবার ঢাকার নারী ও শিশু ট্রাইব্যুনালের ম্যাজিস্ট্রেট দিহানের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন।


বৃহস্পতিবার রাতে কলাবাগান থানায় আনুশকাহর বাবার করা মামলায় শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে দিহানকে ঢাকার নারী ও শিশু ট্রাইব্যুনালে নেয় পুলিশ।মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কলাবাগান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আ ফ ম আসাদুজ্জামান আসামিকে আদালতে হাজির করেন। আসামি স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হওয়ায় তা রেকর্ড করার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশীদ আসামির জবানবন্দি রেকর্ড করেন।


 
এবার রাজধানীর কলাবাগান এলাকায় ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল মাস্টারমাইন্ডের ও লেভেল পড়ুয়া শিক্ষার্থী আনুশকা নুর আমিন না ফেরার দেশে চলে গিয়েছে এ ঘটনায় তার বয়ফ্রেন্ড দিহান সহ 4 জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনা সুত্রে জানাযায় গ্রুপ স্টাডির কথা বলে ডেকে নিয়ে এই ঘটনা ঘটায় দিহান। পরবর্তীতে তাকে যখন গ্রেফতার করা হয় তখন পুলিশের কাছে এই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে

News Page Below Ad