এবার কুমিল্লায় ঘটেছে দুঃখজনক একটি ঘটনা সেখানে বিয়ের মাত্র পাঁচ দিনের মাথায় না ফেরার দেশে চলে গেছে গৃহবধূ বছরের প্রথম দিনে তারা বিয়ে করেছিল এবং পরবর্তীতে স্বামীর চাকরি সূত্রে তারা ঢাকায় চলে আসেন এবং ঢাকায় একটি আবাসিক হোটেলে ছিলেন তারা। এরপরই এই ঘটনা ঘটেছে হোটেল সূত্রে জানা যায় স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দারা হোটেলে উঠেছিল এবং পরবর্তীতে তার স্বামীর অসুস্থতা বোধ করছিলেন এই কারণে তিনি হাসপাতালে যাওয়ার কথা বলে চলে যান এবং ওই তরুণী একাই ছিলেন হোটেল কক্ষে



বছরের প্রথম দিন (১ জানুয়ারি) কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার বড়ধুশিয়া গ্রামের বাসিন্দা মেহনাজ জেরিন নিপার বিয়ে হয় একই উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের বাসিন্দা ও পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) কনস্টেবল জাহিদুল ইসলাম রুবেলের সঙ্গে। ৩ জানুয়ারি গ্রামের বাড়ি থেকে স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় যান নিপা। চাকুরির কারণে স্বামী রুবেলের বাসস্থান অফিসের মেস হওয়ায় স্ত্রীকে নিয়ে ওঠেন রাজধানীর উত্তর কমলাপুরের হোটেল সিটি প্যালেস ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি আবাসিক হোটেলে। আর সেই হোটেল থেকে না ফেরার দেশে নিপা


পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে না ফেরার দেশে যাওয়া ওই তরুণী উদ্ধার করা হয়। এ সময় ভেতর থেকে রুমের দরজা বন্ধ করা ছিল। গত ৩ জানুয়ারি ওই রুমটি ভাড়া নেয় নীপার স্বামী রুবেল। এ ঘটনায় স্বামী পুলিশ সদস্য জাহিদুল ইসলাম রুবেলের বিরুদ্ধে অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়।
হোটেল সূত্র বলছে, গত ৩ জানুয়ারি স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ২ জন হোটেলের ওই রুমটি ভাড়া নেয়। এরপর স্বামী অসুস্থতার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কথা বলে হোটেল থেকে চলে যায়। এসময় ওই তরুণী হোটেলে একাই ছিল। মঙ্গলবার সকালে কোনো সাড়াশব্দ না পাওয়ায় খবর পেয়ে পুলিশ এসে রুমের দরজা ভেঙে উদ্ধার করে। উদ্ধারের পর ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে নিয়ে যায় পুলিশ।


ঢাকার একটি আবাসিক হোটেল থেকে এক তরুণীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ মূলত হোটেলেই না ফেরার দেশে চলে গিয়েছিল ওই তরুণী স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় চলে আসেন তিনি মূলত তাদের বিয়ে হয়েছিল কুমিল্লা এবং এরপর চাকরির সুবাদে ঢাকা চলে আসতে হয় তাদের হবে ঢাকায় এসে তারা একটি আবাসিক হোটেলে ওঠেন এবং পরবর্তীতে অসুস্থতা বোধ করছিলেন বলে হাসপাতাল ত্যাগ করলেও উনি একাই হোটেল কক্ষে ছিল বলে জানা গিয়েছে এরপর ডাকাডাকির পর দরজা না খুললে পুলিশে খবর দেয়া হয়

News Page Below Ad